খাদ্য ও স্বাস্থ্যকথাখাদ্য টিপসমাস্বাস্থ্য টিপস

কাঁচা পেপে গর্ভপাতের ঝুকি বাড়ায়

কাঁচা পেপে গর্ভাবস্থার জন্য ক্ষতিকর

পেপে একটি রসালো ও সুমিষ্টি ফল। পেপে খুব পুষ্টিকর একটি ফল ও পেপের অনেক উপকারিতা রয়েছে। পেপেতে প্রোটিন, ফাইবার, কার্বোহাইড্রেট থাকে। পেপে খুব কম চর্বিযুক্ত একটি ফল। পেপে ওজন কমাতে সাহায্য করে। তবে গর্ভবতী নারীদের জন্য পেপে খাওয়া একদমই ঠিক না।

বয়স্ক লোকেরা গর্ভবতী নারীদের পেপে খেতে নিষেধ করেন। গর্ভাবস্থার প্রথম দিকে পেপে খাওয়া একদমই উচিত নয়। এর মূল কারণ পেপের মাঝ থেকে একটি সাদা দুধের মতো তরল বের হয়। যে তরলের মাঝে গর্ভপাতের কারণ হওয়া এনজাইম থাকে। এসব এনজাইম পোস্টগ্র্যান্ডিনের নিঃসরণকে বাড়িয়ে জরায়ুর সংকোচন ঘটায়। ফলে গর্ভপাত হতে পারে।

বিশেষজ্ঞরা এই নিয়ে মতামত প্রকাশ করেছেন, পেপে খেলে যে গর্ভপাতের সম্ভাবনা থাকে এই যুক্তির পিছনে রয়েছে ইতিহাস। প্রাচীনকালে মিশরীয়রা গর্ভাপাত করাতে ও উটের গর্ভপাত ঘটাতে পেপের বীজ ব্যবহার করতো। সেখান থেকে মানুষ গর্ভাবস্থায় পেপে এড়িয়ে চলতে চায়। গর্ভবতী ইদুরের ক্ষেত্রে এই পরীক্ষা করা হয়েছে কিন্তু মানুষের ক্ষেত্রে এখনো এই পরীক্ষা করা হয়নি। তবে গর্ভাবস্থায় নারীদের পেপে খাওয়া সম্পূর্ণ বন্ধ না করলেও সীমিত খাওয়ার পরামর্শ দেওয়া হয়েছে।

গর্ভবতী নারীর জন্য পেপে খুব স্বাস্থ্যকর একটি ফল। কাঁচা বা পাকা যেকোন পেপেই পিরিয়ডের চক্রে কোন পরিবর্তন আনে না। কাঁচা পেপেতে থাকা পেপেইন নামক উপাদান গর্ভবতী নারীর প্রথম তিনমাসে হজমের জটিলতা সৃষ্টি করে। তাই প্রথম তিনমাসে গর্ভবতী নারীকে কাঁচা পেপে এড়িয়ে চলা উচিত। পাকা পেপে খাওয়ার আগে চিকিৎসকের পরামর্শ নেওয়া উচিত।

আরো পড়ুনঃ

যখন তখন ঘুম আসার কারণ

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
error: Content is protected !!