গৃহসজ্জালাইফস্টাইল

ঘর হোক রঙ্গিন

ঘর হোক রঙ্গিন

আমরা আমাদের দৈনন্দিন কাজের ফাকে সবাই নিজেদের ঘর গুছিয়ে রাখতে খুব বেশি পছন্দ করি। কিন্তু মাঝে মাঝে আমাদের এই সাজানো গুছানো ঘর ও নিজেদের কাছে একঘেয়ে মনে হতে থাকে। ঘরটা নিজেদের পছন্দ না হলে আমাদের মন খারাপ হয়ে যায়।

আমাদের ঘরকে অনেক বেশি সুন্দর করে সাজাতে আমাদের ঘরে অনেক বেশি রঙয়ের ব্যবহার করা যেতে পারে। উজ্জ্বল কিছু রং বাছাই করে আমরা আমাদের অন্দরকে সুন্দর করে সাজাতে পারি। আসলে মনের সাথে এসব উজ্জ্বল রঙয়ের একটা ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক রয়েছে। উজ্জ্বল রঙয়ের ছোয়া থাকলে আমাদের মন মেজাজ প্রফুল্ল হয়ে যায়।

কিন্তু ঘরের প্রতিটি দেয়াল বার বার করে রং করাটা সম্ভব হয়ে উঠে না। তাই ঘরের মাঝে আসবাবপত্র ও কিছু নতুন ডেকোরেশন যোগ করে আমরা আমাদের ঘরকে অনেক বেশি রঙ্গিন করে তুলতে পারি।

কালারফুল বসার ঘর

আমরা আমাদের ঘরকে মনের রঙয়ে রাঙ্গিয়ে তুলতে কিছু জিনিস মাথায় রাখতে পারি-

১। যদি কারো মনে হয়ে থাকে ঘরে ঢুকতেই ঘরটা যেন একটু রঙ্গিন লাগুক তাহলে বসার ঘরের যেকোন একটা দেয়াল বা মেঝে রং করে নিতে পারেন। মেঝের রং পরিবর্তন না করতে চাইলে একটা রঙ্গিন কার্পেট বিছিয়ে নিতে পারেন। আবার বসার ঘর, শোবার ঘর ও খাবার ঘরের মেঝেতে কিছু রঙ্গিন কার্পেট পেতে দিতে পারেন। আবার রঙ্গিন ম্যাট ও ব্যবহার করা যেতে পারে। তাহলেও ঘর অনেক বেশি উজ্জ্বল দেখাবে।

২। আবার ঘরকে রঙ্গিন করে সাজানোর জন্য জানালায় কিছু রঙ্গিন পর্দা ব্যবহার করা যেতে পারে। রঙ্গিন পর্দা ব্যবহার করলে ঘর অনেক বেশি রঙ্গিন লাগবে।

৩। দেয়ালের রং পরিবর্তন না করে দেয়ালে কিছু রঙ্গিন ফটোফ্রেম ব্যবহার করা যেতে পারে। বর্তমানে ইন্টারনেট থেকে ছবি পছন্দ করে ডাউনলোড করে ছবি বাধিয়ে নেওয়া যেতে পারে। তাহলে কিছু রঙ্গিন ছবি ফটোফ্রেম করে দেয়ালে বাধিয়ে নেওয়া যেতে পারে।

কালারফুল ফটোফ্রেম

৪। টেবিল, শেলফ ও টিভি ক্যাবিনেটের উপর রঙ্গিন কিছু ফুলদানি রাখা যেতে পারে। ফুলদানিতে কিছু প্রাকৃতিক ফুল ও কিছু কৃত্রিম ফুল রাখা যেতে পারে। আবার এগুলোতে কিছু সুন্দর ও রঙ্গিন শোপিস ও রাখা যেতে পারে। তাহলেও ঘর অনেক বেশি রঙ্গিন দেখাবে।

৫। ঘরে কোন বইয়ের আলমারি বা তাক থাকলে সেখানে কিছু বই সুন্দর রঙ্গিন মলাটে মুড়ে রাখা যেতে পারে। বইগুলো সাজানোর সময় রঙ্গিন মলাট সামনের পাশে রাখতে হবে। এছাড়া বইয়ের তাকে রঙ্গিন কলম, পেপারওয়েট ও কলমদানি রাখা যেতে পারে।

৬। সোফাতে কিছু রঙ্গিন কুশন রাখা যেতে পারে। কুশনের রং ঘরের সাথে মিলিয়েও রাখা যেতে পারে আবার বিপরীত রঙয়ের কুশন ও রাখা যেতে পারে। কালারফুল থ্রো সোফা ব্যবহার করা যেতে পারে। ডাইনিং টেবিলে রঙ্গিন রানার রাখা যেতে পারে।

৭। শোবার ঘরের ল্যাম্পশেড রঙ্গিন হতে পারে। তাহলে রঙ্গিন আলো ঘরকে রঙ্গিন করে তুলবে।

৮। বাথরুমে রঙ্গিন ফ্রেমের আয়না বসানো যেতে পারে। বাথরুমের লিকুইড সোপ ডিসপেনশার, ব্রাশ হোল্ডার ও সাবানদানি রঙ্গিন হতে পারে।

৯। ঘরের কাঠের আলমারি, চেয়ার, টেবিল, ক্যাবিনেট রং করে নেওয়া যেতে পারে।

১০। বাড়ির ছাদে বা বারান্দায় রঙ্গিন টবে গাছ লাগানো যেতে পারে। বসার ঘরেও রঙ্গিন টব রাখা যেতে পারে। তাহলে ঘরটা রঙ্গিন হয়ে উঠবে।

১১। রং করার সময় হলুদ, কমলা, নীল, সবুজ, গোলাপী, লাল ইত্যাদি রং নির্বাচন করা যেতে পারে। এসব রং ঘরকে উজ্জ্বল করে।

আরো পড়ুনঃ

স্থান কাল অনুযায়ী সঠিক পোশাক নির্বাচন

করোনা সারার পর বেশি চুল পড়লে কি করবেন?

একটি সবজি যা টিকার বিকল্প হিসাবে কাজ করবে

Related Articles

Back to top button
error: Content is protected !!

Adblock Detected

Please turn off your Adblocker.