অন্যান্যরোগতত্ত্ব

দাঁত তোলার আগের ও পরের সতর্কতা

দাঁত তোলার সময়ে সতর্কতা

বিভিন্ন বয়সে বিভিন্ন সময়ে দাঁত ফেলে দেওয়ার প্রয়োজন হতে পারে। যেমন কিশোর বয়সে দাঁত তুলে ফেলে দিতে হয় অনেকেরই। আবার অনেকের প্রাপ্তবয়স্ক সময়েও দাঁত তোলার প্রয়োজন হতে পারে। অত্যাধিক ক্ষয় ও সংক্রমণের কারণে দাঁত তোলার প্রয়োজন হতে পারে।

যাদের দাঁত আকাবাকা তারা চিকিৎসা করে ব্রেসেস করতে পারেন, সেক্ষেত্রেও দাঁত তুলে ফেলার প্রয়োজন হতে পারে। কেমোথেরাপি বা যেকোন অঙ্গ প্রতিস্থাপন করতে হলেও দাঁত তুলে ফেলার দরকার হতে পারে।

দাঁত তোলার বিষয়টি অত্যন্ত সহজ মনে হলেও এটি মূলত একধরনের শল্যচিকিৎসা বা সার্জারি। দাঁত তোলার সাথে স্বাস্থ্যগত কিছু বিষয়ও জড়িত রয়েছে। তাই দাঁত তোলার বিষয়ে সর্তক না হলে কোন বিপদের সম্ভাবনা থেকেই যায়। হেপাটাইটিসের খাদ্যব্যবস্থা

দাঁত তোলার আগের সর্তকতাঃ

১। দাঁত তোলার পূর্বে এক্স-রে করে নিতে হবে এবং রিপোর্টটি সাথে করে চিকিৎসকের কাছে নিয়ে যেতে হবে।

২। হার্ট বা স্ট্রোকের রোগীদের যদি দীর্ঘদিন ধরে কোন যেমনঃ অ্যাসপিরিন, ক্লোপিডোগ্রেল জাতীয় ওষুধ চলে তাহলে সেইটা পূর্বেই চিকিৎসককে জানাতে হবে।

৩। আবার যদি কোন ভিটামিন জাতীয় ওষুধ ও চলে তাহলেও দন্তচিকিতসককে জানাতে হবে। কারণ এসব ওষুধ গ্রহণের পূর্বেই দাঁত তোলা উচিত। নাহলে দাঁতের চোয়ালো ঝুকির সম্মুখীন হয়।

৪। দাঁত তোলার অন্ততপক্ষে চার দিন আগে থেকেই এসব ওষুধ বন্ধ করতে হবে।

৫। ডায়াবেটিস ও উচ্চ রক্তচাপ আছে কিনা তা আগে থেকেই পরীক্ষা করে নেওয়া উচিত।

৬। কিডনিতে কোন রোগ থাকলে ব্যথানাশকের বিষয়ে চিকিৎসককে জিজ্ঞেস করে নিতে হবে।

৭। দাঁত তোলার আগে ধূমপান থেকে বিরত থাকতে হবে।

৮। হার্টের জন্মগত ত্রুটি, লিভারের রোগ, থাইরয়েডের রোগ, কৃত্রিম জয়েন্ট, মূত্রাশয়ের রোগ, হার্টের ভালভের রোগ, অ্যাড্রিনাল রোগ ও রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতার দূর্বলতা আছে কিনা সে সম্পর্কে ধারণা নিয়ে নিতে হবে।

৯। সর্বোপরি দাঁত তোলার আগে নিশ্চিত হয়ে নিতে হবে শারীরিক অবস্থা স্থিতিশীল আছে কিনা তারপর দাঁত তুলতে হবে।

১০। দাঁত তোলার সময় অবশ্যই কাউকে সাথে নিয়ে আসতে হবে।

পানি পান করার সঠিক নিয়ম

দাঁত তোলার পরের সতর্কতাঃ

১। লোকাল অ্যানেস্থেসিয়া ব্যবহার করে দাঁত তোলার পরে সেদিন ই স্বাভাবিক খাবার খাওয়ার কথা বলা হয়। তবে জেনারেল অ্যানেস্থেসিয়া ব্যবহার করে দাঁত তোলার পরে ৭-৮ ঘন্টার আগে কোন খাবার খাওয়া উচিত নয়।

২। জেনারেল অ্যানেস্থেসিয়া ব্যবহার করে দাঁত তোলা হলে শারীরিক অবস্থা জানার জন্য কয়েকটি পরীক্ষা করে নেওয়ার প্রয়োজন হয়।

আরো পড়ুনঃ যেকারণে সকালে হার্টে অ্যাটাকের ঝুকি বেশি থাকে

ভোজ্য তেল হিসেবে সয়াবিন নাকি সরিষা কোনটা খাবেন? আর কেনই বা খাবেন?

প্লাস্টিকের বোতল বারবার ব্যবহারে স্বাস্থ্য ঝুঁকি

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
error: Content is protected !!

Adblock Detected

Please turn off your Adblocker.