চুলের যত্নরূপচর্চালাইফস্টাইল

খুশকি দূর করতে নিমপাতার ব্যবহার

নিমপাতা দিয়ে খুশকি দূর করার উপায়

পূর্বে শীতকালে মানুষের চুলে খুব খুশকির সমস্যা দেখা দিত কিন্তু বর্তমানে গরম এবং বর্ষাকালেও খুশকি খুব দেখা দিচ্ছে। মূলত মাথার ত্বকের মৃত শুকনা কোষকে খুশকি বলা হয়। শ্যাম্পু বা কন্ডিশনারের মাধ্যমে খুশকি দূর করা সম্ভব নয়। খুশকি দূর করতে হলে বাড়তি যত্ন নিতে হয়।

প্রতিটি মানুষের মাথায়ই মৃত কোষ দেখতে পাওয়া যায়। কিন্তু যখন এর মাত্রা বৃদ্ধি পায় তখনই সমস্যা দেখা দেয়। খুশকির কারণে আমাদের মাথার তালু চুলকাতে শুরু করে। ফলে মাথার মৃতকোষগুলো উপরে উঠে আসতে শুরু করে। চিরুনি দিয়ে আচড়ালে জামা কাপড় ভরে যায়। প্রাকৃতিক কিছু উপায় ব্যবহার করে এই খুশকি দূর করা সম্ভব। ত্বক ও চুলের যত্নে সরিষার তেলের ব্যবহার

চলুন দেখে নিই কিভাবে প্রাকৃতিক উপায়ে চুল থেকে খুশকি দূর করা যায়ঃ

১। নিমের পানিতে গোসলঃ

ত্বকের যেকোন সমস্যা দূর করতে নিম পাতা খুব উপকারী একটি উপাদান। আয়ুর্বেদ চিকিৎসকেরা বলেন, নিমপাতা দিয়ে খুশকি থেকে খুব সহজেই মুক্তি পাওয়া যায়। পানিতে নিমপাতা সিদ্ধ করে সেই পানি দিয়ে গোসল করলে খুশকি থেকে খুব দ্রুত মুক্তি পাওয়া যায়। গরমে ত্বকের বাড়তি যত্ন

২। দই ও ত্রিফলা চূর্ণঃ

একটি পাত্রে দই ও ১ টেবিল চামচ ত্রিফলা চূর্ণ সারারাত রেখে দিতে হবে। পরেরদিন সকালে উঠে মাথায় ত্বকে খুব ভালো করে এই মিশ্রণটি লাগাতে হবে। তারপর ৩০-৪০ মিনিট রেখে দিতে হবে। তারপর নিমের পানি দিয়ে গোসল করে নিতে হবে। এই প্যাকটি সপ্তাহে দুইবার করে ব্যবহার করতে হবে। তাহলে খুব দ্রুত উপকার পাওয়া যাবে।

ডার্ক সার্কেল দূর করার উপায়

৩। অ্যালোভেরা ও মেথিঃ

অ্যালোভেরা ও মেথি এই দুইটি উপাদান আমাদের চুলের জন্য খুবই উপকারী। এক কাপ অ্যালোভেরা জেলের সাথে দুই টেবিল চামচ ক্যস্টর অয়েল মিশিয়ে নিতে হবে। তারপর এই মিশ্রণটি মাথার ত্বকে লাগাতে হবে। সারারাত রেখে দিয়ে সকালে চুল ধুয়ে নিতে হবে। এভাবে সপ্তাহে একদিন ব্যবহার করলেই উপকার পাওয়া যাবে।

অথবা,

এককাপ মেথি সারারাত ভিজিয়ে রাখতে হবে। তারপর এর সাথে ২ টেবিল চামচ অ্যালোভেরা জেল মিশিয়ে পেস্ট করে নিতে হবে। তারপর এই পেস্টটি মাথার ত্বকে লাগিয়ে নিতে হবে। ঘণ্টা খানিক রেখে ধুয়ে ফেলতে হবে। তাহলেই খুশকি অনেকটা কমে যাবে। রূপচর্চায় কলার ব্যবহার

৪। নারিকেল তেলঃ

একটি পাত্রে নারিকেল তেল নিয়ে তার সাথে ৫ গ্রাম ক্যালসাইন্ড বোরাক্স বা সোহাগা মিশিয়ে নিতে হবে। এটি মাথার ত্বকে লাগিয়ে সারারাত রেখে দিতে হবে। সকালে উঠে একটি হারবাল শ্যাম্পু দিয়ে চুল ধুয়ে নিতে হবে। সপ্তাহে দুইদিন এই প্যাকটি ব্যবহার করতে হবে।

অথবা,

নারিকেল তেলের সাথে লেবুর রস মিশিয়েও ব্যবহার করা যেতে পারে। এক্ষেত্রে একটি পাত্রে নারিকেল তেল নিয়ে ২ মিনিট গরম করে নিতে হবে। তারপর এর সাথে ১ টেবিল চামচ লেবুর রস মিশিয়ে নিতে হবে। এটি সারারাত রেখে দিতে হবে। তারপর গোসলের দুই ঘণ্টা আগে এই মিশ্রণটি চুলে লাগিয়ে শ্যাম্পু করতে হবে। সপ্তাহে একবার ব্যবহার করলেই উপকার পাওয়া যায়। গরমে ঘাড়ের যত্ন

খুশকি থেকে রক্ষা পেতে বাজারের বিভিন্ন প্রসাধনী মানুষ ব্যবহার করে থাকে। কিন্তু কোন ফল পাওয়া যায় না। প্রাকৃতিক এসব উপাদান ব্যবহার করলে বেশ ভালো উপকার পাওয়া যায়।

নখ কিভাবে ভালো রাখবেন?

রাতের রূপচর্চা

ত্বকের যত্নে পুদিনা পাতা

Related Articles

Back to top button
error: Content is protected !!

Adblock Detected

Please turn off your Adblocker.