রূপচর্চালাইফস্টাইলসৌন্দর্য চর্চা

ফাটা গোড়ালির যত্ন করুন ঘরোয়াভাবে।

ফাটা গোড়ালির ঘরোয়া সমাধান

শীতের সময়ে আমাদের জীবনের দৈনন্দিন একটি অংশ হয়ে দাঁড়ায় রুক্ষ ত্বক ও ফাটা গোড়ালি। ফাটা গোড়ালির সমস্যা প্রায় কমবেশি সকলেরই থাকে। শীতের সময়ে ফাটা গোড়ালির সমস্যা খুব বেশি তীব্র হতে থাকে। ফাটা গোড়ালির সমস্যা যে সিজোনাল তা নয়। কমন কিছু বিষয়ের জন্য আমাদের গোড়ালি ফেটে থাকে।

লং টাইম ধরে দাঁড়িয়ে থাকা, শরীরের বাড়তি ওজন বহন করা, প্রোপার সাইজের জুতা না পড়া, শুষ্ক ত্বক ও সঠিক যত্ন বা হাইজিনের অভাবে গোড়ালি ফেটে থাকে। কোন কোন সময়ে লোকজনের সামনে গেলে আমরা আমাদের ফাটা গোড়ালি ঢেকে রাখতে চাই। এমন পরিস্থিতি থেকে রক্ষা পেতে গোড়ালির কিছুটা যত্ন নিতে হবে।

চলুন দেখে নিই কিভাবে ফাটা গোড়ালি ঘরে বসেই রিপেয়ার করা যায়-

১। অ্যাপেল সিডার ভিনেগার ও লেমন জেস্ট-

লেবুর খোসা ফেলে না দিয়ে লেবুর খোসা দিয়ে বিভিন্ন কাজ করা যায়। কারণ এর অ্যান্টি ইনফ্ল্যামেটরি প্রোপার্টি স্কিনকে এক্সফোলিয়েট করে। ভিনেগার পা ফাটা কমাতে সাহায্য করে। এই দুইটি উপাদান আমাদের স্কিনকে নারিশ করতে সাহায্য করে। তাই ফাটা গোড়ালি খুব সহজেই এই দুইটি উপাদান দ্বারা রিপেয়ার করা যায়। পানি এবং মেলন জেস্ট একসাথে ফুটিয়ে নিতে হবে। পানি হালকা ঠান্ডা হলে তাতে ১ টেবিল চামচ ভিনেগার মিশিয়ে ১৫–২০ মিনিট পা ভিজিয়ে রাখতে হবে। তাহলে গোড়ালির মৃত কোষ দূর হয়ে যাবে ও ত্বক কোমল এবং সুন্দর হবে।

২। টি ট্রি অ্যাসেনশিয়াল অয়েল ও অলিভ অয়েল-

টি ট্রি অ্যান্টি মাইক্রোবিয়াল প্রোপার্টি গোড়ালিকে পরিষ্কার করতে সাহায্য করে। অলিভ অয়েল প্রাকৃতিক ময়েশ্চারাইজার হিসাবে কাজ করে। এটি ড্রাইনেস দূর করতে সাহায্য করে। এই দুইটি উপাদান ফাটা গোড়ালির জন্য উতকৃষ্ট উপাদান। অলিভ অয়েলের সাথে ২-৩ ফোটা টি ট্রি অয়েল ভালো করে মিশিয়ে পায়ে ম্যাসাজ করতে হবে। এটি করার পূর্বে গরম পানিতে পা ভালো করে ভিজিয়ে নিতে হবে। তাহলে ফাটা গোড়ালি দূর হয়ে যাবে।

৩। হলুদ ও যষ্টি মধু

যষ্ঠী মধু অত্যন্ত উপকারী একটি প্রাকৃতিক উপাদান। এটি অ্যান্টি মাইক্রোবিয়াল এলিমেন্ট হিসাবে কাজ করে। হলুদের অ্যান্টি অক্সিডেন্ট প্রোপার্টি স্কিনকে উজ্জ্বল করতে সাহায্য করে। স্কিনের ইচিং ও ইরিটেশন কমায়। হলুদের অ্যান্টি সেপটিক গুণাগুণ ফাটা গোড়ালিকে সারিয়ে তুলতে সাহায্য করে। সামান্য পরিমাণ হলুদের গুড়া ও পরিমাণ মতো যষ্ঠী মধু মিশিয়ে পেস্ট বানিয়ে নিতে হবে। তারপর পায়ের তলায় ম্যসাজ করতে হবে। তাহলে ফাটা গোড়ালি রিপেয়ার হবে।

। ভ্যাসলিন ও লেবুর রস-

ভ্যাসলিন ফাটা গোড়ালি খুব দ্রুতই সারিয়ে তোলে। লেবুর রসে ভিটামিন সি থাকে যা নতুন সেল গ্রোথে সাহায্য করে। প্রথমে কুসুম গরম পানিতে পা ভিজিয়ে রাখতে হবে ২০ মিনিটের জন্য। তারপর পা ধুয়ে শুকিয়ে নিতে হবে। ১ চা চামচ ভ্যাসলিনের সাথে ৩-৪ ফোটা লেবুর রস মিশিয়ে নিতে হবে। মিশ্রণটি পায়ে লাগিয়ে মোজা পরে নিতে হবে। কয়েক ঘণ্টা পরে কুসুম গরম পানি দিয়ে পা ধুয়ে ফেলতে হবে। তাহলে ফাটা গোড়ালি দূর হয়ে যাবে।

৫। পাকা কলা-

চুল ও ত্বকের জন্য পাকা কলা একটি খুব উপকারী উপাদান। কলাতে প্রচুর পরিমাণ ভিটামিন থাকে যা স্কিনকে নারিশ করতে সাহায্য করে। এটি স্কিনকে হাইড্রেট করে সফট রাখে। পাকা কলা ভালো করে ম্যাশ করে সম্পূর্ণ পায়ে হালকা করে রাব করতে হবে। ২০ মিনিট রেখে ধুয়ে ফেলতে হবে।

আরো পড়ুনঃ

মুখ ধোয়ার সময় যেসব ভুল করা যাবে না ভুলেও।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button