আউটডোর প্ল্যান্টইনডোর প্ল্যান্টপ্ল্যান্টিং
Trending

শীতে যেসব ফুলগাছ লাগাতে পারেন।

শীতে লাগাতে পারেন যেসব ফুল

শীতে বাগানকে আরো বেশি সুন্দর ও রঙ্গিন করে তুলতে হলে কিছু শীতকালীন ফুলগাছ আপনার বাগানে যোগ করতে পারেন। এসব ফুলগাছ বাগানের সৌন্দর্য বৃদ্ধি করার পাশাপাশি অনেক বেশি ফুল ও দিয়ে থাকে।

শীতে গাছের পাতা ঝড়ে গেলেও এসব ফুল আপনার মনের খোরাক যোগাতে সাহায্য করবে। শীতকালীন কিছু ফুল সম্পর্কে চলুন জেনে নেওয়া যাক-

শীতকালীন ফুল মানেই গাদা-

গাদা ফুল

শীতের সময়ে ফুল ও ফুলগাছের কথা মাথায় এলেই প্রথমে মাথায় আসে গাদা ফুল। গাদা ফুল দুই ধরনের হয়ে থাকে যথা কমলা রঙয়ের গাদা ও হলুদ রঙয়ের গাদা। গাদা ফুলের রং আমাদের মনে আনন্দ বয়ে আনে। গাদা ফুল গাছ খুব যত্নেই বেড়ে উঠে। গাদা আবার কয়েক জাতের হয়ে থাকে। দেশী গাদা, ইনকা গাদা, রাজ গাদা, রক্ত গাদা, চায়না গাদা ইত্যাদি। যেকোন জাতের গাদা দিয়েই বাগান শুরু করা যায়। গাদা ফুল ছাড়া যেন শীতে্র বাগান মানায়ই না।

শীতের শিউলি-

শিউলি ফুল

গাদার পরেই শীতের সময়ে শিউলি ফুলের নাম মাথায় আসে। শীতের সকালে শিউলি ফুলের চাদর বিছিয়ে থাকার কথা যেন সকলেরই মন কেড়ে নেয়। শিউলি ফুলের সুমিষ্ট সুগন্ধ যেন সকলকেই আকৃষ্ট করে। শীতের সকালে যারাই শিউলি ফুল কুড়িয়েছে তারাই আসলে এই মজাটা উপভোগ করেছে।

রজনীগন্ধার সুবাস-

রজনীগন্ধা ফুল

শীতে ফুলের বাগানকে রঙ্গিন করার পাশাপাশি বাগানকে শুভ্র ও স্নিগ্ধ করতে চাইলে বাগানে রাখতে পারেন রজনীগন্ধা। রজনীগন্ধার পরিপক্ক বাল্ব থেকে এসময়ে ফুল পাওয়া যায়। এই বাল্বগুলো থেকে পরবর্তীতে আরো বাল্ব পাওয়া যায় ও ফুল পাওয়া যায়। রজনীগন্ধা দুই ধরনের হয়ে থাকে। যেমন- ডাবল পেটাল ও সিঙ্গেল পেটাল।

ডালিয়ার বৈচিত্র্য-

ডালিয়া ফুল

ডালিয়া ফুল শীতের সময়েই ফুটে থাকে। শীতের সময়ের সবচেয়ে সুন্দর ফুল ডালিয়া। এই ফুলের পাপড়িগুলো নানা রঙ্গের ও নানা বৈচিত্র্যের। মেক্সিকো থেকে ডালিয়া ফুল এদেশে আসে। এই ফুলটা সাধারণত বড় সাইজের হয়ে থাকে। তবে বর্তমানে নতুন ভ্যারাইটির ছোট সাইজের ডালিয়া ফুল ও পাওয়া যায়।

গোলাপ ফুলগাছ লাগাতে পারেন

গোলাপ ফুলের বিভিন্ন জাত পাওয়া যায় বর্তমানে। গোলাপ ফুল সারা বছরই পাওয়া যায়। তাই বাগানের সৌন্দর্য বাড়াতে বাগানে গোলাপ ফুলগাছ লাগাতে পারেন। বাগানীদের কাছে বিদেশী জাতের গোলাপ ফুলগাছ বেশ জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে। এর মাঝে জুলিয়াস রোজ, ব্ল্যাক প্রিন্স রোজ, এলিজাবেথ রোজ, ইরান রোজ, রোজ গুজার্ড জাতের গোলাপ ফুলগাছ বেশ উল্লেখযোগ্য। গোলাপ গাছ বাগানে লাগালে কিছুদিন পর পর ছাটাই করে নিতে হবে।

আরো কিছু ফুল-

এসব ফুল গাছের পাশাপাশি বাগানে আরো লাগানো যেতে পারে চন্দ্রমল্লিকা, কামিনী, হলিহক, ডেইজি, কসমস, ক্যালাঞ্চু, সূর্যমুখী, মর্নিং গ্লোরি, পিটুনিয়া, সন্ধ্যামালতি, পর্তুলিকা, মেস্তা জবা, ডায়ান্থাস, পপি, সিলভিয়া, মোড়গঝুটি ইত্যাদি।

এসব ফুলগাছ সংগ্রহ করা খুবই সহজ। আশেপাশের যেকোন নার্সারী থেকে এসব ফুলগাছ সংগ্রহ করা সম্ভব। নার্সারীতে টবগাছ এসব গাছ খুব সহজেই পাওয়া যায়। ফুলের কলিসহ ও ফুটন্ত ফুলগাছের চারা নার্সারী থেকে কিনতে পাওয়া যায়। এসব গাছ কিনতে হলে দাম একটু বেশি দিতে হয়।

বারান্দা বাগান

শীতের ফুলগাছ ছাদ, বারান্দা, বাগান ও উঠানে লাগানো যেতে পারে। শীতের ফুলগাছ লাগাতে হলে কিছু বিষয়ের দিকে খেয়াল রাখতে হবে। যেমন-

১। রোদ পায় এমন জায়গায় ফুল গাছ লাগালে ফুল বেশি পাওয়া যায়।

২। গাছে ডিটারজেন্ট মিশ্রিত পানি প্রয়োগ করতে হবে নিয়মিত। তাহলে গাছে কোন ধরনের পোকা মাকড় আক্রমণ করতে না পারে।

৩। গাছে ডাল, পাতা ভিজিয়ে পানি দিলেও গাছে ফুল ফুটতে শুরু করলে ডাল ও পাতায় পানি ভিজিয়ে দেওয়ার কোন দরকার নেই।

৪। গাছ বড় হলে খুটি বেধে দিতে হবে। তাহলে গাছ ঢলে পড়বে না।

৫। ফুল শুকাতে শুরু করলে ফুল কেটে ফেলতে হবে। তাহলে আরো ফুল ফুটবে।

৬। এক সপ্তাহ পর পর গাছের গোড়ার মাটি খুচিয়ে দিতে হবে। আগাছা পরিষ্কার করে দিতে হবে। সার না দিলেও পনের বিশ দিন পর পর গাছের গোড়ায় খৈল পচা পানি দিতে হবে।

আরো পড়ুনঃ

টবে সবজি চাষ করার কিছু টিপস

শীতে গাছের যত্ন

কিভাবে ব্যালকনি সাজাবেন?

কি দেখে গাছের চারা কিনবেন ?

২০২১ সালে ত্বকের পরিচর্যার জন্যে যেসব উপকরণগুলি আরো জনপ্রিয় হয়ে উঠবে

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button
error: Content is protected !!

Adblock Detected

Please turn off your Adblocker.